1. admin@tbcnews24.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:১৭ অপরাহ্ন

কুমিল্লা বরুড়ায় জাল সনদে স্বামী-স্ত্রী বিদ্যালয়ে চাকরির করার অভিযোগ!

আব্দুল্লাহ আল মানছুর
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২ এপ্রিল, ২০২২
  • ৯১৫ বার পঠিত

কুমিল্লা বরুড়া উপজেলার জয়নগর এস.সি উচ্চ বিদ্যালয় ও আগনগর আবুল বশির কারিগরী উচ্চ বিদ্যালয়ে স্বামী গিয়াস উদ্দিন এবং স্ত্রী নাসরিন সুলতানা জাল সনদে সহকারি গ্রন্থাগারিক পদে চাকরি হওয়ার অভিযোগ এসেছে। পৃথক দুইটি বিদ্যালয় কমিটির সভাপতিদের ছত্রছায়ায় র্দীঘ দিন জাল সনদে স্বামী-স্ত্রী’র চাকরির তথ্যটি গোপনীয়তা থাকলেও বর্তমানে অভিযোগটি সকলের মুখে শুনা যাচ্ছে। গোপন সূত্রে জানা যায়-তথ্য প্রমাণের ভিত্তিক্তে গত ২০১৫ সালের সেশনে প্রথমে স্ত্রী নাসরিন সুলতানা চট্টগ্রামের কুমিরায় অবস্থিত আন্তজার্তিক ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় হতে পোষ্ট গ্রেজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সাইন্স বিষয়ে কোর্স সম্পন্ন করার সনদ দিয়ে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরের দিকে জয়নগর এস.সি উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালীন সহকারি গ্রন্থাগারিক নিয়োগ কমিটির অন্যতম সদস্য ও উক্ত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি দীপক চক্রবর্তী অর্থের বিনিময়ে পোষ্ট গ্রেজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সাইন্স ভুয়া সনদে নাসরিন সুলতানাকে চাকরি দেন এবং ২০১৯ সালের দিকে নাসরিন সুলতানাকে এমপিওভূক্তকরণ করা হয়।

অপরদিকে-একই পদ্ধতিতে, গত ২০১৫ সালের সেশনে গিয়াস উদ্দিন চট্টগ্রামের কুমিরায় অবস্থিত আন্তজার্তিক ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় হতে পোষ্ট গ্রেজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সাইন্স বিষয়ে কোর্স সম্পন্ন করার ভুয়া সনদ দিয়ে ২০১৮ সালে আগানগর আবুল বশির কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালীন সহকারি গ্রন্থাগারিক নিয়োগ কমিটির অন্যতম সদস্য ও উক্ত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী আবুল বশির অর্থের বিনিময়ে পোষ্ট গ্রেজুয়েট ডিপ্লোমা ইন লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সাইন্স ভুয়া সনদে গিয়াস উদ্দিনকে চাকরি দেন এবং ২০১৯ সালের দিকে গিয়াস উদ্দিনকে এমপিওভূক্তকরণ করা হয়। একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় স্বামী গিয়াস উদ্দিন ও স্ত্রী নাসরিন সুলতানা’র ভুয়া সনদে বিদ্যালয়ে চাকরি পাওয়ায়,সরকারি অর্থসহ বিদ্যালয়ের অন্যান্য সুযোগ সুবিধা ভোগ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সাধারণ মানুষ কোন প্রকার প্রতিবাদ করলেও এর কোন প্রতিকার হয়নি। এবিষয়ে জয়নগর এস.সি উচ্চ বিদ্যালয়ের তৎকালীন নিয়োগ কমিটির সভাপতি -দীপক চক্রবর্তীর মোবাইলে কল করলে তিনি কোন প্রকার যর্থাথ উত্তর না দিয়ে মোবাইল কলটি কেটে দেন। অপরদিকে, আগানগর আবুল বশির কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আবুল বশির আমেরিকায় অবস্থান করায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রেহানা বশরিকে মোবাইল করলে তিনি প্রতিবেদককে বলেন-বিষয়টি একান্ত নিয়োগ কমিটির এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। সংশ্লিষ্টদের দাবি,কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা ও দুর্নীতি দমন কমিশন জাল সনদে স্বামী-স্ত্রীর চাকরি বিষয়ে ব্যবস্থা নিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

ফেসবুকে আমরা